খুনের অভিযোগ,কবর থেকে কিশোরীর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠালো পুলিশ

0
20

নয়াজামানা,মালদহঃ মৃত্যুর ১০ দিন পর এক কিশোরীর দেহ কবর থেকে তুলে ময়নাতদন্তে পাঠালেন মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃত কিশোরীর নাম ডলি খাতুন (১২)।বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত মিলনগড় কোচপুকুর এলাকায়।কিশোরীকে খুন করা হয়েছে বলে থানায় লিখিত অভিযোগ জানান কিশোরীর মা তাজকেরা বিবি। মৃত কিশোরীর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবার লোকাল ম্যাজিস্ট্রেট ও হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসির উপস্থিতিতে ওই কিশোরীর মৃতদেহটি কবর থেকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়।
মৃত কিশোরীর মায়ের অভিযোগ শ্বশুর,শাশুড়ি ও দেওর মিলে তার মেয়েকে খুন করেছে।জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এই খুন করা হয়েছে বলে অনুমান মায়ের।
মৃত কিশোরীর মা তাজরেকা বিবি জানান, ১০ সেপ্টেম্বর মেয়েকে বাড়িতে একা রেখে মা তাজকেরা বিবি ও বাবা সাহাবুদ্দিন শেখ মাঠে গিয়েছিলেন।ঘন্টাখানেক বাদে তাদের ফোন করে জানানো হয় যে ডলি খাতুন গলায় ফাঁস লাগিয়ে ‌আত্মহত্যা করেছে।বাড়িতে ফিরে এসে দেখেন যে মেয়ে খাটে মৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে।পরিবারের লোকেরা তড়িঘড়ি করে তাকে কবরস্থ করে দেন বলে খবর।
পরিবারের হুমকিতে মুখ বুজে ছিলেন। মেয়েকে খুন করেছে ওরা।বড় মেয়ের মতো তাকে ও ছোট মেয়েকেও খুন করা হবে বলে হুমকি দেন দেওর বলে অভিযোগ।হরিশচন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানান, মৃত দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট আসলেই মৃত্যুর আসল রহস্য জানা যাবে।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here